রৌমারীতে সেনাসদস্যের বাড়িতে আত্মহত্যার চেষ্টা

রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : সেনা সদস্যের বাড়িতে উদ্যেশ মুলক বিষপানে আয়শা (৩৫) নামের এক নারী
আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে তার অবস্থা বেগতিক দেখে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে রাজিবপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করান। কুড়িগ্রামের রাজিবপুর উপজেলার শিবেরডাঙ্গি মাস্টারপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।
স্থানীয় ও পরিবার সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার কোঁদালকাটি ইউনিয়নের চরসাজাই গ্রামের নুর ইসলামের মেয়ে আয়শা খাতুন (৩৫) নামের এক নারী বিয়ের দাবীতে একই উপজেলার শিবেরডাঙ্গি মাস্টারপাড়া গ্রামের সাইদুর রহমানের ছেলে আকবর হোসেন সেনা সদস্যের বাড়িতে যায়। ঘটনার সময় ওই বাড়িতে ছেলের মা ছাড়া অন্য কেউ
ছিলেন না। সেনা সদস্যের মায়ের সাথে অপরিচিত মেয়ে আয়শার বিভিন্ন ধরনের কথা কাটাকাটির এক পর্যায় উদ্যেশ মুলক ও রাগান্তিত হয়ে মেয়েটি বিষপান করে। পরে আশপাশের লোকজন মেয়েটিকে উদ্ধার করে রাজিবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করান। আয়শা মাঝে মধ্যে তার ফুফুর বাড়ি মাস্টারপাড়ায় যেত এবং সেই সুবাদে উক্ত ঘটনাটি ঘটানো হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানান। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী মেয়ের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।
প্রতিবেশি হনুফা জানান, মেয়েটি এই গ্রামে মাঝে মাঝে ফুফুর বাড়িতে বেড়াতে আসত। ছেলে ও মেয়ের মধ্যে কখনও কথা বলতেও দেখি। ছেলেকে বিপদে ফেলার জন্য এই চালাকি করা হয়েছে। কোরবান আলী বলেন, বছর দুই আগে ছেলেটি চাকুরি পেয়েছে। মেয়েটির বাড়ি অনেক দুরে এবং স্বার্থ হাসিল করার জন্যই তার মুল উদ্যেশ্য ছিল।
রাজিবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ নবীউর বলেন, এব্যাপারে এখনও কোন মামলা হয়নি।
মাসুদ রানা