বন্যায় বগুড়ার তিনটি উপজেলায় ফসলের ক্ষতি

বন্যার পাািন এখন বিপদ সীমার নিচ দিয়ে প্রাহিত হচ্ছে। এবারের বন্যায় পানি নেমে যাবার সাথে কৃষকের ফসলী জমির ক্ষতচিহ্ন বেরিয়ে পড়েছে। রোপা আমন, বীজতলা, মাসকলাই, শাকসবজির ক্ষেতে বিনষ্ট হয়েছে। বন্যায় জেলার তিনটি উপজেলায় প্রায় সাড়ে ৫ কেটি টাকার সফল হানি হয়েছে। তবে এ ফসলের মধ্যে মাশকলাইয়ের জন্য প্রণোদনা এসেছে। ক্ষয় ক্ষতি পরিমান উর্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠনোর পর হয়তো ক্ষতি গ্রস্ত কৃষকদের উপকরণ বিতরণ করা হবে।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচারক দুলাল হোসেন জানান, এবারের বন্য দীর্ঘস্থায়ী নাহলেও জেলার যমুনা তীরবর্তী অঞ্চলের উপজেলা, সারিয়াকান্দি, সোনাতলা ও ধুনটের ৫ কোটি ৪৩লাখ ৪৫ হাজার টাকার ফসল হানি হয়েছে। এ তিনটি উপজেলায় ৫ হাজার ১০০ কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
তিনি আরো জানান তিন উপজেলা গুলোর চরাঞ্চল গুলোর জমির বেশি ক্ষতি হয়েছে। সব চেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত উপজেলায় সারিয়াকান্দি। তিনটি উপজেলায় মোট ফসলী জমির ক্ষতি হয়েছে ৪২১হেক্টর জমির। আমনের ক্ষতি হয়েছে ৩০৫ হেক্টর, আমনবীজতলা ২৩ হেক্টর,শাকসবজি ৩২ হক্টের, মাসকলাই ২৩ হেক্টর,আখ ৭ হেক্টর। এ ছাড়া অল্প কিছু পাট ক্ষতি গ্রস্ত হয়েছে।এদিকে তিনটি উপজেলার মাসকলাইয়ের জন্য প্রণোদনা এসেছে। কৃষিবিভাগ জানায় ৪৯০ বিঘার জন্য এ প্রণোদনা দেয়া হবে।বিঘা প্রতি একজন কৃষক পাবেন ৫ কেজি মাশকলাইয়ের বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি এমওপি।